হলুদের বুস্টার শটের উপকারিতা ও শরীরকে ডিটক্স করার সহজ ৩ টি রেসিপি

Kurkuma Turmeric Immune Booster shot

আপনি কি শরীরকে ডিটক্সিফাই করতে চান? অতিরিক্ত ভাজা-পোড়া বা অস্বাস্থ্যকর খাবার খেয়ে ফেলেছেন? তাহলে আপনার শরীরকে বিষমুক্ত স্বাস্থ্যকর করে তোলার জন্য হলুদের বুস্টার বানানোর ৩ টি রেসিপি ফলো করুন। হলুদের বুস্টার শট বা (Turmeric Immune Booster shot) হলো একটি স্বাস্থ্যকর পানীয়। যাতে রয়েছে অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি, এন্টিঅক্সিডেন্ট ও ইমিউন সিস্টেম ইম্প্রুভকারী প্রোপার্টিজ। যা তৈরি করতে ৩ টি প্রধান উপাদান ব্যবহৃত হয়। ১০০% প্রাকৃতিক হলুদ পাউডার, মধু ও গোল মরিচ। আপনি চাইলে স্বাদ বৃদ্ধির জন্য লেবু, দারুচিনি বা পুদিনা পাতা যুক্ত করতে পারেন।

সহজে হলুদের ইমিউন বুস্টার সুট আপনার প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় কিভাবে উপভোগীয় স্বাদ সমৃদ্ধ করে তালিকাভুক্ত করা যায়! সেই প্রয়াসে আমরা নিম্নে হলুদের বুস্টার শট বানানোর সহজ ৩ টি পদ্ধতি উল্লেখ করব।

Turmeric Booster shot Benefits in Bengali, হলুদের বুস্টার শট খাওয়ার উপকারিতা

হলুদের বুস্টার শট (Turmeric Immune Booster shot) এ রয়েছে, এন্টিঅক্সিডেন্ট, অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি ও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিকারী বৈশিষ্ট্য। যা শরীরকে প্রাকৃতিকভাবে ডিটক্সিফাই বা বিষমুক্ত করতে সাহায্য করে। এবং এটি আপনার বিপাকতন্ত্র ও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে প্রধান ভূমিকা রাখতে সক্ষম।

Turmeric Booster shot benefits in Bengali | হলুদের বুস্টার শটের উপকারিতা সমূহ

  1. এটি আপনার অতিরিক্ত মেদ বা Obesity কমাতে সাহায্য করে। হলুদের বুস্টারে থাকা অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি প্রোপার্টিজ আপনার শরীরে প্রদাহ কমিয়ে ইনসুলিন sensitivity বা সংবেদনশীলতা বৃদ্ধি করে। যেটি আপনার অতিরিক্ত ওজন কমানোর জন্য ভালো ভূমিকা রাখে।
  2. রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। হলুদের বুস্টারে থাকা কারকিউমিন, অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি প্রোপার্টিজ ও মধু আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে বৃদ্ধি করে। এবং শ্বর্দি-কাশি ও ঠান্ডা জনিত রোগ নিরাময়ে সাহায্য করে।
  3. হৃদরোগ বা হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কমায়। হলুদে থাকা কারকিউমিন ও মেটাবলিসম প্রোপার্টিজ আপনার Triglycerides এবং LDL Cholesterol কে নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে। যার রেগুলার ব্যবহার আপনার হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি অনেক কমিয়ে দেয়।
  4. এটি ডায়াবেটিস প্রতিরোধক। একটি বিশ্বস্ত গবেষণায় দেখা গেছে, যে উপবাস থাকাবস্থায় কারকিউমিন রক্তের গ্লুকোজ, রক্তে শর্করা এবং বডি মাস ইনডেক্স (BMI) উল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস করেছে। কেননা এটি আপনার মেটাবলিসম সিস্টেম ও ইনসুলিন সেনসিটিভিটিকে বৃদ্ধি করে। মূলত শরীরের এই দুইটি সিস্টেম দুর্বল হলে মানুষ ডায়াবেটিস রোগে আক্রান্ত হন। সুতরাং নিয়মিত প্রতিদিন সকালে Turmeric Booster shot গ্রহণ করুন। এবং বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধ করুন।
  5. হাঁটুর ব্যথা উপশম করে। হলুদের বুস্টার osteoarthritis এর মত দীর্ঘস্থায়ী ব্যথা থেকে মুক্তি দিতে পারে। BMJOPENMedical কর্তৃক ২০২১ সালের একটি গবেষণায় দেখা গেছে। যে হাঁটুর অস্টিওআর্থারাইটিসে আক্রান্ত ব্যক্তিরা যারা হলুদ গ্রহণ করেন তাদের কম ব্যথা হয় এবং হাঁটুর কার্যকারিতা উন্নত হয়।
  6. হলুদ ক্যান্সার প্রতিরোধক। বিশ্বস্ত একটি গবেষণা ২০১৯ সালে এই প্রতিবেদন প্রকাশ করে যে, হলুদ এবং হলুদের বুস্টার শট আমাদের শরীরকে বিভিন্ন ধরনের ক্যান্সারের বিরুদ্ধে লড়াই করতে সাহায্য করে। যার মধ্যে রয়েছে স্তন ক্যান্সার, প্রোস্টেট ক্যান্সার, কোলোরেক্টাল ক্যান্সার, অগ্ন্যাশয়ের ক্যান্সার, মাথা এবং ঘাড়ের ক্যান্সার, মানুষ এবং পরীক্ষাগার মডেল উভয় ক্ষেত্রেই।
  7. সৌন্দর্য্য বৃদ্ধি ও বয়সের চিহ্ন দূর করতে সাহায্য করে। Turmeric Booster এ রয়েছে প্রচুর পরিমাণ এন্টিঅক্সিডেন্ট। যা আপনার বয়সের চিহ্ন ও রিনকেলস কমাতে সাহায্য করে। এবং আপনার চেহারায় উজ্জ্বলতা, সৌন্দর্য ও তারুণ্য ফিরিয়ে আনে।
  8. এটি ব্যাকটেরিয়া ধ্বংসকারী। কারকিউমিন হলুদ ইমিউন বুস্টারে রয়েছে এন্টি ব্যাকটেরিয়াল প্রোপার্টিজ যা শরীরে ন্যাচারাল এন্টি ব্যায়োটিক ঔষধের মত কাজ করে। ফলে শ্বর্দি-কাশি ও ঠান্ডা জনিত রোগে আক্রান্ত হলে এটি আপনাকে দ্রুত সুস্থ হতে সাহায্য করবে। এবং শরীরে ব্যাকটেরিয়ার প্রভাব ধ্বংস করে দিবে।

হলুদের বুস্টার শট বানানোর নিয়ম ৩ টি সেরা রেসিপি। Turmeric Immune Booster shot Recipe in Bengali

1/3 ​​Turmeric Golden Milk​ Shot (টুরমেরিক গোল্ডেন মিল্ক শট)

Turmeric Booster shot Benefits in Bengali, হলুদের বুস্টার শট খাওয়ার উপকারিতা

সহজ পদ্ধতিতে এই পানীয়টি তৈরি করতে দুধের সাথে হলুদ এবং কালো মরিচ দিয়ে ভালোভাবে ফুটিয়ে নিন। যত বেশি ফুটিয়ে এটিকে গাড় করবেন তত বেশী এর কার্যকারিতা বৃদ্ধি পাবে। তারপর স্বাদ ও আরও কার্য ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য সাথে একটু মধু মিশিয়ে নিন। এই হলুদের বুস্টার শট আপনার শরীরকে ডিটক্সিফাই বা বিষমুক্ত করবে। এবং শরীরের ক্লান্তি দুর করে হারানো পুষ্টির পুনর্যোগান দিবে। এছাড়াও এটি হলুদের অন্যান্য স্বাস্থ্য উপকারিতাও নিশ্চিত করে।

2/3 Turmeric ​Detox water​ (টুরমেরিক ডিটক্স ওয়াটার)

Kurkuma Turmeric Immune Booster shot

Turmeric Detox water বানানোর জন্য হলুদ এবং আদা দিয়ে পানিকে ডিটক্স করে নিন। এবং বড় একটি কাচের বয়াম নিয়ে তাতে হালকা কুসুম গরম পানি দিয়ে পূর্ণ করুন। এরপর তাতে কাটা টুকরো করা আদা, লেবুর টুকরো, পুদিনা পাতা ও দারুচিনির কাঠি দিয়ে সারারাত ভিজিয়ে রাখুন। এরপর, সকালে এই জলটি হলুদের সাথে সিদ্ধ করুন এবং সারা দিন এই হলুদের ডিটক্স পানি পান করুন। এতে আপনার পেট ফাঁপা, প্রদাহ এবং গলা ব্যথা, ফ্লু এবং অ্যালার্জির মতো সমস্যা কমবে।

3/3 Turmeric Tea​ (হলুদের চা)

হলুদের বুস্টার শট বানানোর রেসিপি

এই Turmeric Tea বা হলুদের চা বানাতে ১ চা চামচ গ্রেট করা তাজা হলুদ, আধা চা চামচ পরিমাণ আদা, ১ চা চামচ মধু, অর্ধেক লেবুর রস, ২ কাপ গরম পানি নিন। শুধু পানি ফুটিয়ে তাতে আদা ও হলুদ ঢেলে দিন। এবং কিছুক্ষণ ফুটিয়ে নিন, এরপর চা ছেঁকে লেবুর রস ও মধু মিশিয়ে ভালো করে নাড়ুন। এই চায়ে চুমুক দিলেই তা আপনার ফোলাভাব, অস্বস্তি, শরীরের প্রদাহ কমাবে এবং osteoarthritis জনিত ব্যথা নিরাময়ে সাহায্য করবে।

আরও পড়ুনঃ ভিটামিন ডি অভাবের লক্ষণ, উপসর্গ ও চিকিৎসা

Turmeric Immune Booster shot Possible Side effects in Bengali | হলুদের বুস্টার খেলে কি কি প্বার্শ প্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে?

স্বাভাবিকভাবে ন্যাচারাল Turmeric বা হলুদ এবং কারকিউমিন এর কোন প্রকার বিরুপ প্রতিক্রিয়া বা Side effects পাওয়া যায় না। এই হলুদের বুস্টার শট বা karkumin Turmeric Immune Booster ব্যবহার একদম নিরাপদ। এমনকি হলুদের সর্বোচ্চ ডোজ প্রতিদিন 8 গ্রাম পর্যন্ত ব্যবহারেও কোন প্বার্শ প্রতিক্রিয়া লক্ষিত হয়নি।

যাইহোক, ব্যক্তি ভেদে কিছু মানুষ হলুদের ব্যবহারে নিম্নোক্ত বিরূপ প্রতিক্রিয়াগুলো প্রকাশ করতে পারেন।

  • বমি বমি ভাব হতে পারে।
  • ডায়রিয়া।
  • সামান্য মাথা ব্যথা।
  • মাথা ঘোরতে পারে।
  • রক্ত যেতে পারে।
  • এলার্জি

যারা গর্ভবতী এবং বুকের দুধ খাওয়াচ্ছেন তারা অল্প মাত্রায় হলুদ খেতে পারেন, যেমন রান্নায়, বা হলুদের ডিটক্স ও বুস্টার। তবে বিশেষজ্ঞদের মতে পরিপূরকের মতো উচ্চ মাত্রার কনসানট্রেটেড হলুদ না গ্রহণ করা ভালো।

আদা এবং এলাচের মতো জিঞ্জিবেরাসি পরিবারের উদ্ভিদের প্রতি যাদের এলার্জি রয়েছে। তাদের হলুদ খাওয়া এড়ানো উচিত। কারকিউমিন পিত্তথলির সংকোচন এবং পিত্তথলির গঠনের কারণ হতে পারে, তাই পিত্তপাথর বা পিত্তনালীতে বাধা আছে এমন ব্যক্তিদের এটি ব্যবহার করা এড়ানো উচিত।

আরও পড়ুনঃ ভিটামিন ডি এর উপকারিতা ও ভিটামিন ডি সমৃদ্ধ প্রাকৃতিক খাবার সমূহ।

pharmacyseba.com

See all author post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are makes.